করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় নতুন পদ্ধতি অবলম্বন মিলছে সাফল্য।

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঘটনায় আতঙ্কিত গোটা বিশ্ব। প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। অব্যহত মৃত্যু মিছিল। এমন এক সময়ে করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় হইচই ফেলে দিলেন থাইল্যান্ডের একদল চিকিৎসক। ফ্লু এবং এইচআইভি’র চিকিৎসার ওষুধের সংমিশ্রণে করোনাভাইরাসের চিকিৎসার নতুন এই ওষুধ তৈরি করেছেন তারা। গুরুতরভাবে অসুস্থদের মধ্যে নতুন এই ওষুধের প্রয়োগে প্রাথমিকভাবে ব্যাপক সাফল্য মিলেছে বলেও গতকাল রবিবার তারা দাবি করেছেন।

করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় নতুন এই পদ্ধতি অবলম্বন করছেন ব্যাংককের রাজাভিথি হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তাদের এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে গুরুতর অসুস্থ রোগীরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন বলে ব্যাংকক হাসপাতালের ওই চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। নতুন এই ওষুধ প্রয়োগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ইতিবাচক ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।
এইচআইভি’র চিকিৎসায় লোপিনাভির এবং রিটোনাভির ওষুধ ব্যবহার করা হয়। আর ফ্লুর চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয় ওসেলটামিভির। করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় বেশি পরিমাণে ওসেলটামিভিরের সঙ্গে লোপিনাভির এবং রিটোনাভির রোগীর দেহে প্রয়োগ করা হচ্ছে। আর এতে ব্যাপক সাড়া মিলেছে বলে চিকিৎসকদের দাবি।

এই প্রসঙ্গে রাজাভিথি হাসপাতালের ফুসফুস বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ক্রিয়াংসকা অতিপোরওয়ানিচ বলেন, ‘এই ওষুধের প্রয়োগে রোগ সম্পূর্ণ সেরে যাচ্ছে, এমন নয়। তবে রোগীদের অবস্থার দ্রুত উন্নতি ঘটছে। আর একটা একটা বড় সাফল্য।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *