মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখা হতে পারে

অনলাইন ডেস্ক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানো হলে বা গুজবের কারণে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হবার আশঙ্কা দেখা দিলে নির্দিষ্ট এলাকায় মোবাইল নেটওয়ার্কও বন্ধ করা হতে পারে। সোমবার (৩ ডিসেম্বর) নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

হেলালুদ্দিন আহমদ বলেন, ‘সামাজিক মাধ্যমে কিন্তু অসংখ্য আছে ফেক (ভুয়া) আইডি। যাদেরকে আমরা চিনতে পারছি না। তারা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। যদি প্রয়োজন হয় তাহলে আমরা ঐ সব পোষ্ট বন্ধ করে দিতে পারি।’

তিনি আরো বলেন, ‘অথবা, যদি এমন হয় যে ঐ সামাজিক মাধ্যমের কারণে এলাকার আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি হতে পারে সেক্ষেত্রে আমরা নেটওয়ার্ক শাটডাউনও করতে পারি।’

নির্বাচন সামনে রেখে যেকোনো ধরনের গুজব ও অপপ্রচার ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর উপরে সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হবে বলে জানান তিনি। এজন্যে বিটিআরসিসহ ইন্টারনেট সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান, মোবাইল অপারেটর ও পুলিশের সহযোগিতা চেয়েছে নির্বাচন কমিশন।

কোনো ধরনের গুজব যাতে কেউ ছড়াতে না পারে এজন্য সামাজিক মাধ্যমের ওপর সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হবে জানিয়ে হেলালুদ্দিন আহমদ বলেন, ‘যেমন দেলোয়ার হোসেইন সাইদীকে চাঁদে দেখা গেছে সেই গুজবকে ভিত্তি করে হাজার হাজার লোক রাস্তায় নেমে দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনত করেছে। অথবা নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময় একটা প্রোপাগান্ডা হয়েছে। সেটাই আমরা মাথায় রেখে নির্বাচনকে ঘিরে যাতে প্রচার করে মানুষকে উস্কানি দিতে না পারে-তা আমরা মনিটরিং করবো।’

সূত্র: বিবিসি বাংলা।

Facebook Comments

You May Also Like

%d bloggers like this: